আটকে গেল সাবিরার ভোট, আপিলে শুনানি রোববার

দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনে চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী শনিবার হাই কোর্টের ওই আদেশ স্থগিত করে বিষয়টি শুনানির জন্যি আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দিয়েছেন।

আদেশে তিনি বলেন, “যেহেতু এর আগে আমরা এ বিষয়ে একটি সিদ্ধান্ত দিয়েছি, এটা আমরা আগামীকাল পর্যন্ত স্থগিত করে ফুল কোর্টে পাঠিয়ে দিচ্ছি।”

রোববার সকালে প্রধান বিচারপতি নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানি হবে।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি সাবিরার ছয় বছরের দণ্ড ও সাজার কার্যকারিতা স্থগিত করার পর তাঁর আইনজীবী আমিনুল ইসলাম বলেছিলেন, ‘ফৌজদারি কার্যবিধির ৪২৬(১) ধারা অনুসারে আদালত সাবিরা সুলতানার সাজা ও দণ্ড স্থগিত করে। এখন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে তাঁর আর কোনো বাধা থাকল না।’

আমিনুল ইসলাম আরো বলেছিলেন, ‘আমরা শুনানিতে বলেছি যে, কোনো ব্যক্তির দণ্ড আপিল বিভাগে চূড়ান্তভাবে নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করে দণ্ডিত বলার অবকাশ নেই। সে কারণে আপিল বিচারাধীন থাকা অবস্থায় দণ্ডপ্রাপ্তদের ক্ষেত্রে সংবিধানের ৬৬(২) (ঘ) অনুচ্ছেদ প্রযোজ্য হবে না।’

যদিও বিএনপির পাঁচ নেতার সাজা স্থগিত চেয়ে এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৭ নভেম্বর বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ একটি আদেশ দেন। আদেশে তাদের সাজা স্থগিতের আবেদন খারিজ করে দেন।

একই সঙ্গে আদালত পর্যবেক্ষণে বলেন, ‘নিম্ন আদালতে দুই বছরের বেশি দণ্ড হলে আপিল বিচারাধীন থাকা অবস্থায় কোনো ব্যক্তি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না। তবে আপিল বিভাগে দণ্ড স্থগিত ও বাতিল হলেই কেবল অংশ নিতে পারবেন।’ কিন্তু পরে এই নেতারা আপিল আদালতে যান। সেখানেও হাইকোর্টের আদেশই বহাল থাকে।

এর পরই হাইকোর্টের একক বেঞ্চের আদেশ আসায় এ নিয়ে মতভেদ দেখা দেয়। এই পরিপ্রেক্ষিতেই হাইকোর্টের ওই আদেশ চ্যালেঞ্জ করে আজ চেম্বার আদালতে আপিলে যায় রাষ্ট্রপক্ষ।

মিথ্যা তথ্য ও জ্ঞাত আয়-বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় সাবিরা সুলতানাকে গত ১২ জুলাই ঢাকার বিশেষ আদালতের বিচারক শহিদুল ইসলাম দুর্নীতি দমন আইনের ২৬(২) ধারায় তিন বছর এবং ২৭(১) ধারায় তিন বছর কারাদণ্ড দেন।

একইসঙ্গে পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড ও অনাদায়ে আরও তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। পাশাপাশি সাবিরা সুলতানার এক কোটি ৭৮ হাজার ১৩৫ টাকা রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করার আদেশ দেওয়া হয়।

About Benapole Pratidin

Check Also

যশোরে শাহীন চাকলাদারের পদত্যাগ

যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ …