তামিম-সৌম্যর সেঞ্চুরিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হার

আড়াইমাস পর মাঠে ফেরা তামিম ইকবালের সেঞ্চুরিতে বিশাল রান তাড়ায় দারুণ শুরু পেয়েছিল বিসবি একাদশ। ওয়ানডাউনে নেমে সেঞ্চুরি করেছেন সৌম্য সরকারও।

মিডল অর্ডার থেকে প্রত্যাশিত রান না মিললেও এই দুজনের ব্যাটে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রস্তুতি ম্যাচে হারিয়েছে বিসিবি একাদশ।

বৃহস্পতিবার বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে টস জিতে আগে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ৩৩১ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জবাবে ৪১ ওভারে বিসিবি একাদশ ৩১৪ রান তোলার পর আলোকস্বপ্লতায় খেলা শেষ হয়ে যায়। ডি/এল মেথডের হিসাবে তখন বিসিবি একাদশ জিতে যায় ৫১ রানে। 

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে মাশরাফি বিন মুর্তজা ও রুবেল হোসেনের প্রথম স্পেল সাবধানী ব্যাটিংয়ে কাটিয়ে দেন কাইরন পাওয়েল ও হোপ। উইকেটে বোলারদের জন্য কিছুই ছিল না। তবে ভালো লাইন-লেংথে বোলিং করে দুই পেসার পরীক্ষা নেন ওপেনারদের।

মাশরাফি-রুবেল আক্রমণ থেকে সরার পর দুই তরুণ পেসার মেহেদী হাসান রানা ও শাহিন আলমের ওপর চড়াও হন হোপ। টেস্ট সিরিজে ব্যর্থ এই ব্যাটসম্যানের আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ১৫ ওভারে একশ ছোঁয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর।

বিসিবি একাদশের একমাত্র বিশেষজ্ঞ স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপু ভাঙেন সফরকারীদের ১০১ রানের জুটি। নিজের দ্বিতীয় বলে ফিরিয়ে দেন ৪৯ বলে ৪৩ রান করা পাওয়েলকে।

লম্বা সময় পর দলে ফেরা ড্যারেন ব্রাভো হাতছাড়া করেছেন বড় ইনিংস খেলার সুযোগ। রানার বলে কট বিহাইন্ড হয়ে শেষ হয় বাঁহাতি এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানের ২৪ রানের ইনিংস।

ওয়ানডে সিরিজে ঝড় তোলা শিমরন হেটমায়ার শট খেলতে শুরু করেছিলেন। তবে তাকে বেশি দূর যেতে দেননি রুবেল। তাকে ছক্কা হাঁকানোর চেষ্টায় মিডউইকেটে সৌম্য সরকারের হাতে ধরা পড়েন ছন্দে থাকা বাঁহাতি মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। ২৭ বলে দুটি করে ছক্কা-চারে হেটমায়ার করেন ৩৩।

দ্বিতীয় স্পেলে ফিরে অভিজ্ঞ মারলন স্যামুয়েলসকে ফেরান মাশরাফি। ৮৪ বলে ৬ চার ও তিন ছক্কায় ৮১ রান করা হোপকে থামান বাঁহাতি স্পিনার অপু।

বিনা উইকেটে ১০১ থেকে ১৭৬ পর্যন্ত যেতে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ফেলা ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩৩১ পর্যন্ত যায় চেইস ও ফ্যাবিয়ান অ্যালেনের ব্যাটে।

৩২ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৪৮ রান করা অ্যালেনকে এলবিডব্লিউ করে ফেরান রুবেল। টেস্ট সিরিজে ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ চেইস ৫১ বলে ৬ চার ও ১ চারে অপরাজিত থাকেন ৬৫ রানে।       

রুবেল, নাজমুল ও রানা নেন দুটি করে উইকেট।

বড় রান তাড়ায় বিসিবি একাদশকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন তামিম ও ইমরুল কায়েস। ৯ ওভারে গড়েন ৮১ রানের জুটি। একটু ঝুঁকি নিয়ে খেলা ইমরুল ফিরেন থিতু হয়ে। অফস্পিসার চেইসকে কাট করতে গিয়ে পয়েন্টে ক্যাচ দিয়ে শেষ হয় বাঁহাতি এই ওপেনারের ৫ চারে গড়া ২৭ রানের ইনিংস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ৫০ ওভারে ৩৩১/৮ (কাইরন পাওয়েল ৪৩, হোপ ৮১, ব্রাভো ২৪, স্যামুয়েলস ৫, হেটমায়ার ৩৩, রভম্যান পাওয়েল ০, চেইস ৬৫*, অ্যালেন ৪৮, পল ২, আমব্রিস ১০*; রুবেল ২/৫৫, মাশরাফি ১/৩৭, রানা ২/৬৫, শাহিন ০/১৮, সৌম্য ০/৭২, নাজমুল ২/৬১, শামিম ১/১৬)

বিসিবি একাদশ: ৪১ ওভারে ৩১৪/৬ (তামিম ১০৭, ইমরুল ২৭, সৌম্য ১০৩*, মিঠুন ৫, আরিফুল ২১, তৌহিদ ০, শামিম ৯, মাশরাফি ২২*; রোচ ০/৪৯, টমাস ১/৫৭, চেইস ২/৫৭, পল ০/৪২, বিশু ২/৮১, অ্যালেন ১/১৯)

ফল: বিসিবি একাদশ ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে ৫১ রানে জয়ী

About Benapole Pratidin

Check Also

ফ্লাডলাইট সমস্যা: সিলেটের টি-টোয়েন্টি শুরু দুপুরে

শুরুতে যে সূচিটা দেওয়া হয়েছিল, সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি হওয়ার কথা ছিল বিকেল …