এই বছর প্রথম নোবেল পুরস্কারে থাকছে না সাহিত্য

১৯৪৯ সালে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার চালু হয়। কিন্তু চলতি বছর এই ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেয়া হবে না। ৬৯ বছরে প্রথমবারের মতো ঘটতে যাচ্ছে এমন ঘটনা।

সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার দিয়ে থাকে সুইডিশ অ্যাকাডেমি। কিন্তু সংস্থাটির ভেতর যৌন কেলেঙ্কারি ও আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ উঠার পর গেল মে মাসে তারা জানায়, এ বছর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার ঘোষণা করা হবে না।

সুইডিশ অ্যাকাডেমি জানিয়েছে, এর পরিবর্তে আগামী বছর ২০১৮ ও ২০১৯ সালের জন্য দুজন সাহিত্যে নোবেল জয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে।

অ্যাকাডেমির স্থায়ী সচিব অ্যান্ডার্স ওলসন বলেন, সাহিত্যে পরবর্তী নোবেল জয়ীকে বাছাই করার আগে আমাদের মানুষের আস্থা অর্জনের জন্য সময় প্রয়োজন।

সাহিত্য জগতের বেশিরভাগই সুইডিশ অ্যাকাডেমির এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত প্রকাশ করেছে।

এদিকে সুইডেনের কালচারাল সোসাইটি চলতি বছর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কারের বিকল্প একটি অ্যাওয়ার্ড দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। তারা তাদের তথাকথিত ‘নিউ অ্যাকাডেমি প্রাইজ’-র জন্য চারজন সম্ভাব্য বিজয়ী নামও প্রকাশ করেছে। আগামী ১২ অক্টোবর বিজয়ীর নাম প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে তারা।

এ বছর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার না দেয়ার মূলে রয়েছেন সুইডিশ অ্যাকাডেমির ফটোগ্রাফার জ্য-ক্লড আর্নল্ট। তিনি সুইডিশ অ্যাকাডেমির সদস্য ও লেখিকা ক্যাটরিনা ফ্রসটেনসনের স্বামী।

এই আর্নল্টের বিরুদ্ধে অন্তত ১৮ জন নারী ধর্ষণ বা যৌন নির্যাতনের অভিযোগ এনেছেন। এরমধ্যে কিছু ঘটনা সুইডিশ অ্যাকাডেমির মালিকানাধীন স্থাপনা ও সম্পত্তির ভেতর ঘটেছে।

আর্নল্ট ও ফ্রসটেনসন স্টকহোমে একটি সংস্থা চালিয়ে থাকেন। আর সেটির অর্থায়ন করেছে সুইডিশ অ্যাকাডেমি।

গেল সপ্তাহে স্টকহোমের একটি আদালতে আর্নল্টের ধর্ষণ মামলা শেষ হয়েছে। এখন আদালতের রায়ের অপেক্ষা। যদিও আর্নল্ট তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

এছাড়া সাহিত্যে নোবেল জয়ীর নাম ফাঁস করে দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে আর্নল্টের বিরুদ্ধে। তবে ওই কেলেঙ্কারি ফাঁস হওয়ার পর ফ্রসটেনসন ও আর্নল্টের ভবিষ্যৎ নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে ব্যর্থ হয় সুইডিশ অ্যাকাডেমির সদস্যরা। এর ফলে অ্যাকাডেমির সদস্যদের মধ্যে মতানৈক্য দেখা দেয়। এমনকি অ্যাকাডেমির সদস্যরা একে অপরকে অপমানও করেন।

এদিকে ফ্রসটেনসনকে তার পদ থেকে অপসারণ করা হবে না অ্যাকাডেমির এমন সিদ্ধান্তে সংস্থাটির ১৮ সদস্যদের মধ্যে তিনজন পদত্যাগ করেন। অ্যাকাডেমির স্থায়ী সচিবও প্রতিবাদ জানিয়ে পদত্যাগ করেন। পরে ফ্রসটেনসন নিজেও অ্যাকাডেমি ছেড়ে যান।

অন্যদিকে ওই কেলেঙ্কারির পর সুইডিশ সোসাইটির ১০০ জন গুরুত্বপূর্ণ কালচারাল সদস্য নিউ অ্যাকাডেমি প্রাইজ নামে একটি অ্যাওয়ার্ড চালু করে। তবে এখানে কোনও প্রার্থীর মনোনয়ন প্রক্রিয়া সুইডিশ অ্যাকাডেমির মতো গোপন নয়, বরং উন্মুক্ত।

উল্লেখ্য, রসায়ন, পদার্থ, চিকিৎসা, সাহিত্য, অর্থনীতি ও শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়ে থাকে। ১৯৪৯ সালে প্রথমবার সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়। গেল বছর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান জাপানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ সাহিত্যিক কাজুও ইশিগুরো।