এক বছর পিছিয়ে গেল টোকিও অলিম্পিক

করোনাভাইরাসের ভয়াবহতায় অবশেষে পিছিয়েই দিতে হলো টোকিও অলিম্পিক-২০২০।

আগামী জুলাইয়ে জাপানের টোকিওতে হওয়ার কথা ছিল বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া আসরটি। সেটি এক বছর পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট টমাস বাখের সঙ্গে ফোনে আলোচনার পর এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। আগামী বছর ২০২১ সালের গ্রীষ্মে অলিম্পিক গেমস হবে বলে জানিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী, ‘আইওসিকে আমি এক বছরের জন্য স্থগিত করার প্রস্তাব দিয়েছিলাম, তারা আমার সঙ্গে একমত হয়েছে।’

চলতি বছরের ২৪ জুলাই থেকে টোকিওতে অলিম্পিক গেমস শুরু হওয়ার কথা ছিল। চলত ৯ অগাস্ট পর্যন্ত। কিন্তু বিশ্বজুড়ে মহামারী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় এ আসর স্থগিত করার জন্য আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি ও জাপান সরকারের উপর চাপ বাড়ছিল। সিদ্ধান্ত নিতে চার সপ্তাহ সময় নিয়েছিল অলিম্পিক কমিটি। তবে প্রবল চাপে অনেক আগেই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে তারা।

এর আগে অস্ট্রেলিয়া ও কানাডা টোকিওতে কোনো খেলোয়াড় পাঠাবে না বলে জানায়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি ও পোল্যান্ড এক বছরের জন্য অলিম্পিক পিছিয়ে দেওয়ার দাবি জানায়। সব দেশের সব খেলা স্থগিত হয়ে যাওয়ায় খেলোয়াড়দের প্রস্তুতিও হচ্ছিল না ঠিক মতো। তাই অলিম্পিক পিছিয়ে দেওয়া ছাড়া উপায় ছিল না আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির।

এর আগে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে ১৯৪০ সালে অলিম্পিক বাতিল হয়ে গিয়েছিল। সেবারও আয়োজক ভেন্যু ছিল টোকিও। ভেন্যু পরিবর্তন করলেও একই কারণে ১৯৪৪ অলিম্পিকআয়োজনও সম্ভবপর হয়নি। তার আগে ১৯১৬ সালে গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক বাতিল হয় প্রথম বিশ্বযুদ্ধের কারণে। তবে বাতিল হলেও এবারই প্রথম অলিম্পিক স্থগিত হলো।

করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে স্থবির হয়ে পড়েছে। মহাদেশীয় ফুটবল কোপা আমেরিকা ও ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপও পিছিয়েছে। পিছিয়েছে আইপিএল, পিএসএল সহ ক্রিকেটের সব আসর। স্থগিত অন্যান্য ক্রীড়াক্ষেত্রের সব আসরও।

Leave a Reply

shares