কাশ্মীরে জঙ্গিদের গুলিতে নিহত ৫ বাঙালি শ্রমিক

ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের কুলগাম জেলায় মঙ্গলবার বন্দুক হামলায় পাঁচ বাঙালি শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো এক শ্রমিক।

গত দু সপ্তাহের মধ্যে ওই রাজ্যে এটি পঞ্চম বন্দুক হামলার ঘটনা। এই হামলার জন্য তথাকথিত জঙ্গিদের দায়ী ভারতীয় সেনা ও মিডিয়াগুলো।

পুলিশ জানিয়েছে, পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদের বহালনগর গ্রাম থেকে যাওয়া জনা পনেরো শ্রমিকের একটি দল কুলগামের কটরাসু গ্রামে একটি কাঠের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। আপেল বাগিচায় কাজ করতে প্রতি বছরই কাশ্মীরে যেতেন ওঁরা। আজ সন্ধেয় তাঁদের কয়েক জনকে ঘর থেকে বার করে এনে এলোপাথাড়ি গুলি চালায় জঙ্গিরা। নিহত হন পাঁচ জন।

তাঁদের মধ্যে রয়েছেন রফিক শেখ (২৮), কামরুদ্দিন শেখ (৩০), মুরসালিম শেখ (৩০), নইমুদ্দিন শেখ (২৮), রফিকুল শেখ (৩০)। আহত হয়ে অনন্তনাগের হাসপাতালে ভর্তি জ়হিরুদ্দিন। সেনার ১৮ নম্বর ব্যাটেলিয়ন ও জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ এলাকায় তল্লাশি শুরু করেছে।

গত ক’দিন ধরেই ভিন্ন রাজ্যের বাসিন্দাদের নিশানা করছে জঙ্গিরা। সব ঘটনাই ঘটেছে দক্ষিণ কাশ্মীরে। ২৪ অক্টোবর শোপিয়ানে আপেল আনতে যাওয়া তিন রাজ্যের ট্রাকচালক খুন হন। এক আপেল বাগানের মালিককে মারধর করা হয়। দু’দিন পরে খুন হন পঞ্জাবের আপেল ব্যবসায়ী চরণজিৎ সিংহ।

আহত হন সঞ্জীব নামে আর এক ব্যক্তি। সে দিনই ছত্তীসগঢ় থেকে যাওয়া এক ইটভাটা শ্রমিক খুন হন পুলওয়ামায়। কাল খুন হন জম্মুর ট্রাক চালক নারায়ণ দত্ত। তা ছাড়াও গত কাল শ্রীনগরে লাল চকের কাছে হরি সিংহ বাজার এবং আজ সোপোর টাউন বাসস্ট্যান্ডে গ্রেনেড ছুড়েছে জঙ্গিরা।

Leave a Reply

shares