খালেদার মুক্তি চেয়ে ৬ মার্চ বিএনপির মানববন্ধন

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে ৬ মার্চ মানববন্ধন করবে বিএনপি। ওই দিন বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই কর্মসূচি পালন করা হবে।

সোমবার বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ কথা জানান।

রিজভী বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া খুবই অসুস্থ। অবর্ণনীয় কষ্টে আছেন ‘গণতন্ত্রের মা’। অবৈধ ক্ষমতার মত্ততায় বিনা চিকিৎসায় খালেদা জিয়াকে পরিত্যক্ত কারাগারের পর্যাপ্ত আলো-বাতাসহীন স্যাঁতসেঁতে অন্ধকার প্রকোষ্ঠে বন্দী করে রাখা হয়েছে। তাঁকে অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলায় কারাগারে ফেলে রেখে চরমতম মানসিক ও শারীরিক শাস্তি দিচ্ছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘গতকাল রোববার পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কারাগারের অস্থায়ী আদালতে এসে দেশনেত্রী খালেদা জিয়া বলেছেন, আমার শরীরটা ভালো যাচ্ছে না। খুবই অসুস্থ আমি। চিকিৎসকেরা দরকারি চিকিৎসাসেবা দিচ্ছেন না। মাত্র একবার এসে চিকিৎসকেরা দেখে গেছেন।

স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য রক্ত নেওয়া হয়নি। ডায়াবেটিসের রোগী হিসেবে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে না। থেরাপি ঠিকমতো দেওয়া হচ্ছে না। আমি সত্যিই অসুস্থ।’

রিজভী খালেদা জিয়াকে পছন্দমতো বিশেষায়িত হাসপাতালে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করার দাবি জানান। তাঁকে জামিনে মুক্তি দেওয়ার দাবি জানান। রিজভী বলেন, তিনি হাঁটতে পারছেন না। পা ফুলে গেছে। হাত অবশ। পুরোনো রোগগুলো বেড়ে গেছে। চোখেও প্রচণ্ড ব্যথা।

নির্যাতন সহ্য করতে গিয়ে তাঁর পূর্বের অসুস্থতা এখন আরও গুরুতর রূপ ধারণ করেছে। সারভাইক্যাল স্পন্ডিলোসিসের জন্য কাঁধে প্রচণ্ড ব্যথা, হিপ-জয়েন্টেও ব্যথার মাত্রা প্রচণ্ড। ঝুঁকিপূর্ণ শরীর।

বিএনপির এই নেতা বলেন, তারা প্রতিমুহূর্তে দলীয় চেয়ারপারসনকে নিয়ে আশঙ্কায় আছেন।