গুগলের জন্মদিন আজ

দেখতে দেখতে ২০ বছরে পা দিয়েছে বিশ্বের সর্ববৃহৎ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুগল। নানা চড়াই-উৎড়াই পেরিয়ে এই সার্চ ইঞ্জিন প্রযুক্তি দুনিয়ার এক মহীরুহে পরিণত হয়েছে।

গুগল প্রতিষ্ঠালাভ করে ১৯৯৮ সালে। মজার বিষয় হলো কেউ জানতো না গুগলের জন্মদিন ঠিক কবে। এর কারণ হলো, গুগলের জন্ম ঠিক কোন দিনটিতে হয়েছিল তা বলা মুশকিল।

গুগলে প্রথম থেকে যারা কাজ করেছেন তাদের মতামতে ভিন্নতা রয়েছে। সবমিলিয়ে মোটামুটি ৬টি দিন গুগলের জন্মদিন হিসেবে উঠে এসেছে।

তবে প্রতিষ্ঠানের দুই কর্ণধার সের্গেই ব্রিন এবং ল্যারি পেজ ২৭ সেপ্টেম্বরকে গুগলের জন্মদিন হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ২০০৬ সালের পর থেকেই। তাই আজই এই বিখ্যাত প্রতিষ্ঠানে শুভ জন্মদিন। 

ভাষার বিস্তার, সংস্কৃতি কিংবা অজানা কোন বিষয়ের বিবরণ এমন বিষয়গুলো নিয়েই নিজেদের জন্মদিনে অসাধারণ ডুডল করেছে প্রযুক্তি জায়ান্ট গুগল। 

১৯৯৫ সালে কিন্তু একবার গুগলের জন্মদিন পালন করা হয়েছিল। তখন সবেমাত্র গুগল কাজ শুরু করেছে। নামধাম ঠিকঠাক হয়নি। তবে ১৯৯৮-তেই এর প্রতিষ্ঠাকাল বলে ধরা হয়। বেশ কয়েকবার ৪ সেপ্টেম্বরকে জন্মদিন বলে ধরা হয়েছিল।

হয়তো খেয়াল করে দেখেছেন যে, গুগল ক্রোম ব্রাউজার যখন ইন্টারনেট সংযোগ পায় না, তখন তা একটি সাবধান সংকেত দেখায় টি-রেক্স ডাইনোসরের ছবির মাধ্যমে। ওই সময় স্পেসবার চাপ দিলে একটি গেম শুরু হবে টি-রেক্সকে নিয়ে। গুগল ক্যাম্পাসে টি-রেক্সের বিশাল এক ভাস্কর্যও রাখা আছে।

এটি কর্মীদের বলছে, প্রতিষ্ঠানকে দুর্গন্ধময় করে তোলা যাবে না। গুগলের সদরদপ্তর অনেক বড় এবং এর মাঠে প্রচুর ঘাস রয়েছে। এত বেশি ঘাস যে তা কাটছাঁটের জন্য অনেক মানুষ দরকার। তাই গুগল এ কাজটি করতে ছাগল ভাড়া করে। 

গুগল কিন্তু যেকোনো প্রতিষ্ঠান কিনে নিতে ওস্তাদ। এত বেশি প্রতিষ্ঠান কিনে নিয়েছে যা আপনি চিন্তাও করতে পারবেন না। প্রতি সপ্তাহেই একটি করে কম্পানি কেনা যেন গুগলের অভ্যাসে পরিণত হয়। এগুলো ছোট কম্পানি।

কিন্তু বিশাল হয়ে ওঠার সম্ভাবনা আছে। গুগলের ‘আই অ্যাম ফিলিং লাকি’ বাটনটি অনেক বারই দেখেন। এর দাম কিন্তু মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার হয়ে গেছে।

কর্মীদের জন্য দারুণ সুবিধা দেয় গুগল। কর্মরত অবস্থায় কোনো কর্মী মারা গেলে গুগল তারের স্ত্রী বা স্বামীকে যথেষ্ট অর্থ প্রদান করে। কেউ মারা গেলে তার পরিবার পরবর্তী এক যুগ পর্যন্ত বেতনের অর্ধেক করে পেতে থাকবেন। এসব কারণে গুগল পৃথিবীর সবচেয়ে আকাঙ্ক্ষিত এক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে।

প্রতিষ্ঠার পর ২০০১ সাল পর্যন্ত গুগলের লোগোটি মাঝখানে ছিল না। বামের দিকে রাখা হয়েছিল। হোমপেজটিও ছিল একেবারে সাধারণ।

২০০১ সালের পর গুগল একে মাঝখানে এনে দেয়। তখন থেকেই গুগল আনছে নানা পরিবর্তন। ধীরে ধীরে আরো পরিবর্তনের মাধ্যমে গুগল আরো বেশি জনপ্রিয় ও গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠবে বলেই বিশ্বাস সবার।

About Benapole Pratidin

Check Also

‘০১৩’ সিরিজের নম্বর চালু করল গ্রামীণফোন

দেশের শর্ষিস্থানীয় মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন তাদের পুরনো ‘০১৭’ সিরিজের পাশাপাশি নতুন ‘০১৩’ সিরিজের নম্বর …