চমক নিয়ে এলো নতুন ফ্ল্যাগশিপ আইফোন-১১

জমকালো আয়োজন এবং হাজারো দর্শনার্থীদের সামনে বহুল অপেক্ষিত অ্যাপলের নতুন ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন আইফোন-১১, ১১ প্রো এবং প্রো ম্যাক্স অবমুক্ত করা হয়েছে স্টিভ জবস থিয়েটারে।

সেই সঙ্গে ছিল সেভেনথ জেনারেশনের শক্রিশালী আইপ্যাড, অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ-৫।

ফিনিশিং এলিগেন্ট লুকের নতুন আইফোনে ব্যবহার করা হয়েছে সবচেয়ে শক্তিশালী গ্লাস। যা এই প্রথম কোনো স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয়েছে বলে দাবি করছে অ্যাপল।

আইফোন-১১ এ রয়েছে ১২ মেগাপিক্সেলের দুটি ওয়াইড এবং আল্ট্রা ওয়াইড অ্যাংগেল লেন্স। যা দিয়ে ল্যান্ডস্কেপ এবং পোট্রেট ফটোগ্রাফির জুড়ি নেই। এক কথায় নতুন আইফনের ক্যামেরা সবধরনের ছবি এবং ভিডিও ধারণ করার জন্য আপোষহীন। এছাড়া ক্যামেরা সেকশনের ফিচারের মধ্যে থাকছে ডাইন্যামিক ফটোশুট, স্টুডিও কোয়ালিটির ফটোগ্রাফি এবং সুপার নাইটমুড ফিচার।

এতে ব্যবহৃত হয়েছে ৬.১ ইঞ্চির লিকুইড রেটিনা ডেসিপ্লে। যেখানে পর্দার বিষয়বস্তু আরও জীবন্ত এবং প্রাণবন্ত হয়ে উঠবে।

আইফোনে-১১ তে থিয়েটার সাউন্ড প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে এবং ডলবি অ্যাটমোস্ট সাউন্ড সিস্টেম যুক্ত করা হয়েছে। ফলে ঘরে বসেই থিয়েটারের মজা উপভোগ করা যাবে।

আইফোন-১১ দিয়ে আপনি পাচ্ছেন পেশাদার ক্যামেরা ফিচার। অর্থাৎ এই ফোন দিয়ে 4k রেজুলেশনে ৬০ ফ্রেমে রেখে ভিডিও ধারণ করতে পারবেন।

অ্যাপলই প্রথম সেলফি মুডে 4k রেজুলেশনে ৬০ ফ্রেমে ভিডিও ধারণ করার সুবিধা দিয়েছে।

স্মার্টফোন জগতে দ্রুতগতির পারফরমেন্স এবং শক্তিশালী সিপিইউ/জিপিউ কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করতে এ১৩ বায়োনিক চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে।

নতুন আইফোনে আগের আইফোন থেকে দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফ এবং পানি নিরোধক প্রযুক্তি শক্তিশালী করা হয়েছে।

আগামী শুক্রবার থেকে আইফোন ভক্তরা প্রি-অর্ডার করতে পারবেন এবং ২০ সেপ্টেম্বর থেকে বাজরে দেখা মিলবে নতুন আইফোনের।

আইফোন-১১ ছয়টি দৃষ্টিনন্দন ভিন্ন কালারে পাওয়া যাবে। এর বাজারমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৬৯৯ মার্কিন ডলার যা বাংলাদেশি টাকায় ৫৮ হাজার ৯৫২ টাকা।

Leave a Reply

shares