জন্মদিনেই মহাত্মা গান্ধীর দেহভস্ম চুরি

ভারতের জাতির পিতা মহাত্মা গান্ধীর ১৫০তম জন্মদিবস উদযাপনের দিনই তার শবদাহের সংরক্ষিত ছাইভস্ম চুরির ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়। 

খবরে বলা হয়, গত বুধবার (২ অক্টোবর) মধ্যপ্রদেশের রেওয়া শহরের বাপু স্মৃতি ভবনে এ ঘটনা ঘটে। ১৯৪৮ সাল থেকেই এখানে গান্ধীর ভস্মাবশেষ রক্ষিত ছিল। 

বিবিসি আরও জানায়, শুধু ছাইভস্ম চুরিই নয়, চোরেরা ভবনে রক্ষিত গান্ধীর পোস্টার বিকৃত ও তার নামের ওপরে সবুজ কালিতে ‘বিশ্বাসঘাতক’ শব্দটি লিখে রেখে যায়।

গান্ধী নিজে ধর্মপ্রাণ হলেও হিন্দু-মুসলিম ঐক্য প্রচেষ্টার ফলে উগ্র হিন্দুবাদীরা ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের মহান এ নেতাকে বিশ্বাসঘাতক বলে মনে করে। এ গোষ্ঠীরই এক আততায়ীর হাতে ১৯৪৮ সালে নিহত হন তিনি।   

বাপু ভবনের কেয়ারটেকার মঙ্গলদীপ তেওয়ারি বলেন, আমি গান্ধীজীর জন্মদিন উপলক্ষে সকাল সকাল ভবনের গেট খুলে দেই। রাত ১১টার দিকে ভবনে ফিরে দেখি বাপুর (গান্ধী) ছাইভস্ম চুরি হয়েছে। তার পোস্টার বিকৃত করা। এ এক কলঙ্কজনক ঘটনা। 

এদিকে এ ঘটনায় পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন স্থানীয় কংগ্রেস পার্টির নেতা গুরমিত সিং। তিনি বলেন, এ ধরনের পাগলামি অবশ্যই বন্ধ হওয়া দরকার। 

রেওয়া পুলিশ জানায়, তারা এ ঘটনাকে জাতির মধ্যে বিভাজন ও শান্তি বিনষ্টের চেষ্টা হিসেবে দেখছে। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে। 

১৯৪৮ সালে নিহত হওয়ার পর শাস্ত্র অনুসারে গান্ধীর শব দাহ করা হলেও, ছাইভস্ম নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হয়নি। খ্যাতি ও ঐতিহাসিক গুরুত্বের কারণে সে সময় তার ছাইভস্ম দেশ জুড়ে বিভিন্ন স্মৃতিভবনে সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়। সেই ভস্মাবশেষেরই কিছু রেওয়ার বাপু ভবনে ছিল।

Leave a Reply

shares