জন্মবার্ষিকীতে জিয়ার মাজারে বিএনপির শ্রদ্ধা

সকাল সাড়ে ১০টায় শেরে বাংলা নগরে দলের প্রতিষ্ঠাতার কবরে ফুল দেওয়ার পর মোনাজাত করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ নেতারা।

১৯৩৬ সালের ১৯ জানুয়ারি বগুড়ার গাবতলীতে জন্ম নেওয়া জিয়া পঁচাত্তরের ট্রাজেডির পর রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে বিএনপি গঠন করেন।

১৯৮১ সালে এক ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানে জিয়ার মৃত্যুর পর বিএনপির হাল ধরেন তার স্ত্রী খালেদা জিয়া। দলকে ক্ষমতায় নিয়ে প্রধানমন্ত্রীও হয়েছিলেন তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা বরাবর দিনটিতে জিয়া কবরে ফুল দিতে গেলেও দুর্নীতির মামলায় দণ্ড নিয়ে তিনি কারাগারে থাকায় শনিবার তাকে ছাড়াই জিয়ার সমাধিতে যান বিএনপি নেতারা।

উপস্থিত ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, আবদুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, মোহাম্মদ শাহজাহান, শাহজাহান ওমর, রুহুল আলম চৌধুরী, এজেডএম জাহিদ হোসেন, আহমেদ আজম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আতাউর রহমান ঢালী, ফরহাদ হালিম ডোনার, একেএম আজিজুল হক, কেন্দ্রীয় নেতা আসাদুল হাবিব দুলু, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, শহিদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, কামরুজ্জামান রতন, শিরিন সুলতানা, কায়সার কামাল, রিয়াজুল ইসলাম রিজু, দেওয়ান সালাহউদ্দিন, অধ্যক্ষ সোহরাবউদ্দিন, আবদুস সালাম আজাদ, মীর নেওয়াজ আলী, আমিরুল ইসলাম আলিম, হারুনুর রশীদ, রফিকুল ইসলাম বাচ্চু সহ প্রমুখ।

শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে জিয়ার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে দুদিনের কেন্দ্রীয় কর্মসূচি শুরু করেছে বিএনপি।

দ্বিতীয় দিনে শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় বিএনপি মহাসচিব ফখরুল নয়া পল্টনে দলের  কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ড্যাব আয়োজিত ‘ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প’ উদ্বোধন করেন। এ সময়ে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, ড্যাবের সভাপতি অধ্যাপক একেএম আজিজুল হক, মহাসচিব এজেডএম জাহিদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।