যশোরের ৬টি আসনে নৌকার প্রার্থীদের জয়

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যশোরের ৬টি আসনেই আওয়ামী লীগ বিজয়ী হয়েছেন। তবে শোচনীয়ভাবে পরাজিত হয়েছেন ঐক্যফ্রন্ট (বিএনপি) প্রার্থীরা।

এদিকে ভোট কারচুপি, ভোট গ্রহণে অনিয়ম, কেন্দ্র থেকে এজেন্ট বের করে দেওয়াসহ নানা অভিযোগে যশোর-১ ও যশোর -৫ আসনের ঐক্যফ্রন্টের মনোনীত প্রার্থীরা দিনের শেষের দিকে ভোট বর্জনের ঘোষনা দিয়েছেন।

যশোর-১ (শার্শা) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শেখ আফিল উদ্দিন ২,০৯,০৩৬ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী মফিকুল হাসান তৃপ্তি পেয়েছেন ৪৮০২ ভোট।

যশোর-২ (ঝিকরগাছা-চৌগাছা ) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মেজর জেনারেল (অব.) ডা. নাসির উদ্দিন ৩,৩২,০৯৫ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী মুহাদ্দিস আবু সাঈদ মুহাম্মদ শাহাদৎ হুসাইন পেয়েছেন ১২,৯৮৮ ভোট।

যশোর -৩ (সদর ) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী র ৩,৬১,৩৩৩ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী অনিন্দ্য ইসলাম অমিত পেয়েছেন ৩১,৭১০ ভোট।

যশোর -৪ (বাঘারপাড়া-অভয়নগর ) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রনজিৎ কুমার রায় ২,৭৬,২৮১ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী টি এস আইয়ূব পেয়েছেন ২৫,৯১৯ ভোট।

যশোর-৫ (মণিরামপুর) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী স্বপন ভট্টাচার্য্য ২,৪৩,৩৮২ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস পেয়েছেন ২৩,১১২ ভোট।

যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ইসমাত আরা সাদেক ১,৫৪,০৫৩ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী আবুল হোসেন আজাদ পেয়েছেন ৫,৫৪৮ ভোট।