নির্বাচনে টাকা ছড়ানোর অভিযোগে ব্যবসায়ী আটক, ৮ কোটি টাকা উদ্ধার

ঢাকার মতিঝিলে নগদ ৮ কোটি টাকা এবং ১০ কোটি টাকার চেকসহ আলী হায়দার নামে এক ঠিকাদারকে আটক করেছে র‍্যাব-৩।

তিনি একটি আমদানি-রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালকও (এমিড)। নির্বাচন প্রভাবিত করতে এই টাকা বিতরণের পরিকল্পনা ছিল বলেও জানিয়েছে র‍্যাব।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মতিঝিল সিটি সেন্টারের ২৭ তলায় ওই কোম্পানির অফিস থেকে আলী হায়দারকে আটক করে র‌্যাব।

মিজানুর রহমান বলেন, আলী হায়দারের কাছে প্রায় আট কোটি টাকা এবং দশ কোটি টাকার চেক পাওয়া গেছে। “তিনি টাকা ছড়িয়ে নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টায় ছিলেন।”

আলী হায়দার কোন দল বা কোন প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছিলেন- সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দেননি এই র‌্যাব কর্মকর্তা।

তবে জব্দ করা টাকার সঙ্গে তারেক রহমানের ছবি সম্বলিত এক বিএনপি নেতার লিফলেট দেখা গেছে সেখানে।

ঢাকার একটি আসনের সব ভোটারের নাম-ঠিকানা সম্বলিত একটি তালিকাও আলী হায়দারের অফিসে পাওয়া গেছে বলে র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ভোটারদের কাছে টাকা ছড়ানোর অভিযোগে এর আগে সোমবার সকালে ঢাকার রাজারবাগ এলাকা থেকে শহীদুল ইসলাম ও মুহিত নামে দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

চার লাখ টাকাসহ তাদের গ্রেপ্তারের কথা জানিয়ে সে সময় পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, গ্রেপ্তার দুজন ঢাকা-৮ আসনে বিএনপি প্রার্থী মির্জা আব্বাসের কর্মী।