থার্টিফার্স্টে কোনো অনুষ্ঠান নয় : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

রোববার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের বলেন, ভোটের তারিখ ও থার্টিফার্স্ট নাইট কাছাকাছি সময়ে হওয়ায় এই ব্যবস্থা।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ সংসদ নির্বাচনে ভোট দেবেন ভোটাররা। 

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “থার্টিফার্স্টে কোথাও কোনো অনুষ্ঠান আয়োজন করে সেখানে ডিজে পার্টি করা, আতশবাজি কিংবা পটকা ফোটানো যাবে না।

“আন্তর্জাতিকমানের হোটেলগুলো ছাড়া অন্যান্য বারগুলোতে ৩১ ডিসেম্বর বিকাল থেকে পরদিন বিকাল পর্যন্ত বিক্রি বন্ধ থাকবে। এই সময়ের মধ্যে বৈধ আগ্নেয়াস্ত্র নিয়েও ঘোরাঘুরি করা যাবে না।”

থার্টিফার্স্টের আগে ২৫ ডিসেম্বর খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের বড় ধর্মীয় উৎসব বড়দিন উপলক্ষ্যে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা হাতে নেওয়া হয়েছে বলেও জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

“সারাদেশে সাড়ে তিন হাজার গির্জায় বড়দিন উপলক্ষ্যে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। বড়দিনেও আতশবাজি, পটকা ফোটানো যাবে না।”

বড়দিন উপলক্ষ্যে গির্জাগুলোর প্রবেশপথে থাকবে আর্চওয়ে। এছাড়া কূটনীতিক পাড়ায় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।