ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে বেলজিয়ামের মুখোমুখি ফ্রান্স

সেন্ত পিতার্সবুর্গে মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় সেমি-ফাইনালে মুখোমুখি হবে দল দুটি।

রাশিয়া বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত সব ম্যাচ জেতা বেলজিয়াম টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ গোল করেছে।

কোয়ার্টার-ফাইনালে ব্রাজিলের বিপক্ষে চমক দেখান কোচ মার্তিনেস; স্ট্রাইকার রোমেলু লুকাকুকে জায়গা ছেড়ে দিয়ে মিডফিল্ডার কেভিন ডি ব্রুইনেকে ‘ফলস নাইন’ হিসেবে খেলান তিনি।

ম্যাচটিতে পরিকল্পনাটা দারুণ কাজে লাগে। ব্রাজিলের মিডফিল্ড অনেকটাই অকার্যকর হয়ে পড়েছিল। তাতে লুকাকু ও এদেন আজার বারবার প্রতিপক্ষের ফুলব্যাকদের ছাড়িয়ে যাচ্ছিল।

ব্রাজিলের সেন্টার ব্যাকদের দুই পাশের হুমকি সামাল দিতে হচ্ছিল, তাই মাঝমাঠে পাওয়া জায়গা দারুণভাবে কাজে লাগান ডি ব্রুইনে।

নিষেধাজ্ঞার কারণে শেষ চারের ম্যাচে খেলতে পারবেন না পিএসজির ডিফেন্ডার তমা মুনিয়ে। ফলে অবশ্যই সেমি-ফাইনালে দলে একটি পরিবর্তন আনতেই হবে মার্তিনেসকে।

সোমবার সংবাদ সম্মেলনে দেশম বলেন, “বেলজিয়াম এখানে ভাগ্যক্রমে আসেনি। ব্রাজিলের বিপক্ষে বিশেষ এক কৌশল নিয়ে তারা দুর্দান্ত একটি ম্যাচ খেলেছে। আমাদের বিপক্ষেও তারা এরকম কিছু করবে কি-না? হয়তো।”

“তাদের দল আক্রমণভাগে গতি বাড়ায়। তারা এই মান ধরে রাখবে। কিন্তু ব্রাজিলের বিপক্ষে মার্তিনেস মিডফিল্ডে জোর দিয়েছিল।”

“তারা খুব দ্রুততার সঙ্গে আক্রমণে ওঠে। তাই আমি নিশ্চিত করেছি, ম্যাচের শুরু থেকে যে কোনো পরিস্থিতি বা ম্যাচ চলার সময় পাল্টানো পরিস্থিতির জন্য আমার খেলোয়াড়রা যেন প্রস্তুত থাকে।”