ফেক নিউজের কবলে বিপাকে পড়ছে ফেসবুক

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। ফেক নিউজের কবলে বিপাকে পড়ছে ফেসবুক। আর তাই বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতি এড়াতে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

২০১৪ সালে শুরু করা ‘ট্রেন্ডিং নিউজ’ বিভাগটি তুলে নিচ্ছে সামাজিক এই যোগাযোগ মাধ্যম।

ফেসবুকের হেড অব নিউজ প্রোডাক্ট অ্যালেক্স হার্দিম্যান একটি ব্লগে জানিয়েছেন, ‘গবেষণায় আমরা জেনেছি, সময় যত গড়াচ্ছে এই ট্রেন্ডিং নিউজটিকে অপ্রয়োজনীয় মনে করছেন অধিকাংশ ব্যবহারকারী।

বেনাপোল বন্দরে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড

আগামী সপ্তাহ থেকে তাই এটি সরিয়ে নেওয়া হবে। এমনকি থার্ড পার্টি এপিআইগুলোতেও এটি মিলবে না।’

এই ট্রেন্ডিং নিউজ নিয়ে দুবছর আগেই বিতর্কে জড়িয়েছিল ফেসবুক। এর অ্যালগরিদমে বিভিন্ন খবর নির্বাচন নিয়েই তৈরি হয় বিতর্ক।

অ্যালগরিদম নিখুঁতভাবে সংবাদ বাছাই করতে পারে না বলে প্রায়ই ভুয়া খবর ট্রেন্ডিং শুরু হয় এবং তা দ্রুত ছড়িয়েও পড়ে। এরপর এই নিয়ে জবাবদিহি করতে হয় ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গকেও।

ফেক নিউজের কবলে বিপাকে পড়ছে ফেসবুক

লন্ডনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়, ভবিষ্যতে সংবাদ পরিবেশনে নতুন মাত্রা যোগ করতেই এই ব্যবস্থা নিচ্ছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তাদের মতে, এখন পর্যন্ত গড়ে মাত্র এক দশমিক পাঁচ শতাংশ ক্লিক হয়েছে এই ট্রেন্ডিং নিউজে। তাই এটি সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

এছাড়া লাইভ ভিডিও, কিংবা আলোচনার ভিডিও অথবা খবরের ভিডিও পোস্ট করা যাবে। এর পাশাপাশি কোনো নিউজ পোস্টে ব্রেকিং নিউজের লেবেলও লাগানো যাবে।

তবে এই ট্রেন্ডিং নিউজের পরিবর্তে নতুন কি ফিচার আনবে ফেসবুক? জানা গেছে, তারা ‘ব্রেকিং নিউজ লেবেল’, ‘টুডে ইন’ ও ‘ফেসবুক ওয়াচ’ নামে তিনটি নতুন ফিচার আনবে।

এর মধ্যে নিউজ ভিডিওর জন্য ‘ফেসবুক ওয়াচ’কে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হবে। এর মাধ্যমে ইউটিউবের মতোই ভিডিও হাব তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে ফেসবুকের।

অপরদিকে, একই সেকশনে স্থানীয় সংবাদ প্রকাশকেরা তাদের শহরের বিভিন্ন মানুষকে তথ্য ও খবরের সঙ্গে যুক্ত করতে পারবেন।

পাশাপাশি স্থানীয় সংবাদও পাওয়া যাবে ‘টুডে ইন’ নামে ফেসবুকে এমন একটি নির্দিষ্ট সেকশন থাকবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.