বেনাপোলে দুই বাংলার ভাষাপ্রেমীদের মিলনমেলা

আওয়াল হোসেন, নিজস্ব প্রতিবেদক:

যশোরের বেনাপোল ও ভারতের পেট্রাপোল সীমান্তের শূন্যরেখায় ২১ শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদদের স্মরণে দুই বাংলার মানুষের মিলনমেলা বসেছিল।

বৃহস্পতিবার সকালে বেনাপোল নোমাসল্যান্ডে অস্থায়ী শহীদ মিনারে দুই বাংলার বিশিষ্টজনরা ফুল দিয়ে ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মঞ্চে আলোচনা আর নাচে-গানে মেতে ওঠেন দুই বাংলার হাজারো মানুষ। দুই বাংলা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন কমিটির আয়োজনে সকাল থেকে বেনাপোল নোমাসল্যান্ডে আসতে থাকে দুই বাংলার হাজারো ভাষাপ্রেমিরা।Image may contain: 14 people, including Alook Sardar, people smiling, people standing and crowd

“আমার প্রতিরোধ আমার সংগ্রাম আমার স্বাধীনতা আমার অধিকার আমার ৫২ আমার বর্ণমাল ” এ শ্লোগানকে সামনে রেখে দিন ব্যাপি দুই দেশের জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয়ে অতিথিদের ফুল দিয়ে বরণ,উপহার সামগ্রী প্রদান,রক্তদান কর্মসূচি,ক্রেস্ট প্রদান,উত্তরীয় প্রদান, আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়।Image may contain: 7 people, people standing

দুই বাংলার প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

বাংলাদেশের পক্ষে আরো উপস্থিত ছিলেন যশোর ৮৫-১ শার্শা আসনের সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিন এমপি, বেনাপোল কাস্টমস হাউসের কমিশনার বেলাল হোসাইন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজুল হক মঞ্জু সহ প্রমুখ।Image may contain: 9 people, people smiling, people standing

ভারতের পক্ষে আরো উপস্থিত ছিলেন, বনগাঁ লোকসভার সাংসদ মমতা ঠাকুর, রাজ্যসভার বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস, উত্তর ২৪ পরগনার জেলা সভাধিপতি শ্রীমতি বীনা মন্ডল,বনগাঁ পৌর মেয়র শংকর আঢ্য সহ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের মঞ্চে একুশের কবিতা আবৃত্তি, ছড়া, গীতিনাট্য, আলোচনা ও সংগীত পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানে জি-বাংলা ‘সা রে গা মা পা’ কাঁপানো সঙ্গীত শিল্পি মাঈনুল আহসান নোবেল গান পরিবেশন করেন।