বৈশ্বিক সন্ত্রাস সূচকে বাংলাদেশের ৪ ধাপ উন্নতি

বৈশ্বিক সন্ত্রাসবাদ সূচকে সার্বিকভাবে দক্ষিণ এশিয়ার অবস্থা গেলবারের চেয়ে খারাপ হলেও উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের।

বাংলাদেশ ছাড়াও নেপাল, ভুটান ও শ্রীলঙ্কার উন্নতি হয়েছে এই সূচকে। অপরদিকে আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও ভারতের খারাপ অবস্থায় অবনমন ঘটেছে দক্ষিণ এশিয়ার।

অস্ট্রেলিয়াভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইনস্টিটিউট ফর ইকনোমিক অ্যান্ড পিসের (আইইপি) ডিসেম্বরে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা যায়, সন্ত্রাসবাদ সূচকে ১০ এর মধ্যে ৫ দশমিক ৬৯৭ পয়েন্ট নিয়ে এবার চার ধাপ উন্নতি ঘটেছে বাংলাদেশের।

১৬৩টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ আছে ২৫তম অবস্থানে। গত বছর তালিকায় ২১তম অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ, স্কোর হয়েছিল ৫ দশমিক ৬৯৭।

‘গ্লোবাল টেররিজম ইনডেক্স-২০১৮’-এ ৯ দশমিক ৭৪৬ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় এক নম্বরে আছে ইরাক, অর্থাৎ বিশ্বে সবচেয়ে সন্ত্রাসপ্রবণ হয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটি।
দক্ষিণ এশিয়ার দেশ আফগানিস্তান ও পাকিস্তান আগের বছরের অবস্থান ধরে রেখেছে। বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ সন্ত্রাসপ্রবণ আফগানিস্তান, আর পাকিস্তানের অবস্থান পঞ্চম। ভারতের অবস্থান এক ধাপ খারাপের দিকে গিয়ে হয়েছে সপ্তম।
তালিকায় খারাপের দিকে গেছে যুক্তরাষ্ট্র ও মিয়ানমারও। ১২ ধাপ অবনতিতে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান হয়েছে ২০তম। তাদের চার ধাপ পেছনে থাকা বাংলাদেশের প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমারের (২৪তম স্থানে) অবনতি ঘটেছে ১৩ ধাপ।

বাংলাদেশে সাম্প্রতিক সময়ের বড় সন্ত্রাসী ঘটনা হিসেবে ২০১৬ সালে ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিজান ক্যাফেতে জঙ্গি হামলায় ২৮ জনকে হত্যার ঘটনাটি উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে।