ভোটগ্রহণ শেষ, গণনা শুরু

প্রার্থীদের ভোট বর্জন ছাড়াও বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। এখন চলছে ভোট গণনার প্রক্রিয়া। কোনো কোনো কেন্দ্রে ইতোমধ্যে গণনা শুরু হয়ে গেছে। এরপর শুরু হবে ফল ঘোষণা।

এবার জাতীয় সংসদের ২৯৯ আসনে একযোগে ভোটগ্রহণ করা হয়েছে। সকাল ৮টায় শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ কার্যক্রম বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে। ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পেয়েছেন ১০ কোটি ৪১ লাখ ৯০ হাজার ৫৭৩ জন ভোটার।

এদিকে ভোটে কারচুপি, এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে না দেওয়াসহ নানা অনিয়মের অভিযোগে নির্বাচন বর্জন করেছেন বিএনপির বেশ কয়েকজন প্রার্থী। বিবৃতি দিয়ে ভোট থেকে সরে গেছে ধানের শীষে নির্বাচন করা জামায়াতও।

এদিকে ৩০০টি সংসদীয় আসনের মধ্যে গাইবান্ধা-৩ আসনের একজন প্রার্থী মৃত্যুবরণ করায় সেখানে নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। পরে ২৭ জানুয়ারি ভোটের দিন রেখে পুনরায় তফসিল ঘোষণা করেছে ইসি। 

এজন্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এক সঙ্গে ২৯৯ আসনের ভোটের পরিপ্রেক্ষিতে সরকার গঠিত হবে। যে দল বা জোট ১৫১ আসন পাবে, সেই দল বা জোটই পরবর্তী সরকার গঠন করবে।

এবার নির্বাচনে ৩৯টি নিবন্ধিত দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মিলিয়ে মোট এক হাজার ৮৬১ জন প্রার্থী নির্বাচনে লড়ছেন। এর মধ্যে দলীয় প্রার্থী এক হাজার ৭৩৩ জন। আর ১২৮ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী।

নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব (নির্বাচন পরিচালনা শাখা) ফরহাদ আহাম্মদ খান জানান, আওয়ামী লীগ ও শরিকদের মিলিয়ে নৌকা মার্কায় ২৭২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আর ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন বিএনপি ও তাদের শরিক দলের ২৮২ প্রার্থী। 

আর সবচেয়ে বেশি প্রার্থী রয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের। হাতপাখা প্রতীকে দেশজুড়ে ২৯৯টি আসনে প্রার্থী দিয়েছে এই দলটি।