মন্ত্রিসভা নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী আজ বুধবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনকের সমাধিসৌধে ফুল দিয়ে এই শ্রদ্ধা জানান।

ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর প্রধানমন্ত্রী সেখানে কিছু সময় নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। সশস্ত্র বাহিনীর একটি সুসজ্জিত দল এ সময় গার্ড অব অনার প্রদান করে। বিউগলে বেজে ওঠে করুণ সুর।

বঙ্গবন্ধুর ছোট মেয়ে শেখ রেহানা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী সেখানে ফাতেহা পাঠ করেন এবং দেশ-জাতির শান্তি, সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনা করেন।ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর ছোট বোন শেখ রেহানা মোনাজাতে অংশ নেন। ছবি: পিআইডি

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট নিহত বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের আত্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন তিনি। মোনাজাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর ছোট বোন শেখ রেহানার দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করা হয়।

পরে শেখ হাসিনা তাঁর নবগঠিত মন্ত্রিসভার সদস্য এবং দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের নিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা জানান। তিনি সেখানে মিলাদ মাহফিল এবং দোয়ায় অংশ নেন।

শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা জাতির জনকের সমাধিসৌধে কিছুক্ষণ অবস্থান করে পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত করেন। প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সদস্য, কেন্দ্রীয় নেতা, মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও সংশ্লিষ্ট সচিব, ঊর্ধ্বতন বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বুধবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। ছবি: পিআইডি

গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট নিরঙ্কুশ বিজয় পায়। ৭ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন।

নবগঠিত ৪৭ সদস্যের মন্ত্রিসভার সদস্যরাও সেদিন শপথ নেন। বঙ্গভবনের দরবার হলে অনুষ্ঠিত এক রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এবং নতুন মন্ত্রিসভায় ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন উপমন্ত্রী শপথ নেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এই শপথবাক্য পাঠ করান।