মাহমুদউল্লাহর শতকে বাংলাদেশের পাঁচশ

মাহমুদউল্লাহর শতকে বাংলাদেশের পাঁচশ

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে ৫০৮ রানে থামে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস। যাতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখেন মাহমুদউল্লাহ। ২৪২ বল খেলে ১৩৬ রানের চমৎকার একটি ইনিংস খেলেন তিনি।

প্রথম দিনটা ভালোই কাটিয়েছে বাংলাদেশ, পাঁচ উইকেট হারিয়ে ২৫৯ রান গড়েছিল। ঢাকায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনেও সে ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখে স্বাগতিকরা।

সেঞ্চুরির কাছাকাছি গিয়ে অধিনায়ক সাকিব আল হাসান সাজঘরে ফিরলেও অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহর চমৎকার শতকে রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ।

এর আগে তরুণ ওপেনার সাদমান ইসলাম খেলেন ৭৬ রানের চমৎকার একটি ইনিংস, যাতে তিনি বল খরচ করেছেন ১৯৯টি। আর মুমিনুল ও মিঠুন ২৯ রান করে নেন। ওপেনার সৌম্য সরকার করেন ১৯ রান।

পরে পঞ্চম উইকেট জুটিতে সাকিব-মুশফিক কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। কিন্তু মুশফিক দ্রুত ফিরে গেলে (১৪) কিছুটা চাপে পড়ে যায় দল। তবে সেই চাপ সামলে দলকে এগিয়ে নেন সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ জুটি।

দুজনে ১১১ রানের জুটি গড়েন। তবে সাকিব ১৩৯ বলে ৮০ রান করে আউট হন। এক টেস্ট পর দলে ফিরে আট নম্বরে ব্যাট করতে নেমে লিটন দাস ৫৪ রানের চমৎকার একটি ইনিংস খেলেন।

এই ম্যাচের বাংলাদেশ একাদশে চমক, অভিষেক হয়েছে তরুণ ওপেনার সাদমান ইসলামের। তবে আঙুলে চোট পাওয়া মুশফিকুর রহিম শেষ পর্যন্ত একাদশে রয়েছেন। একাদশে রাখা হয়েছে লিটন দাসকেও। তবে কোনো পেসার ছাড়াই মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ।

মুস্তাফিজুর রহমানকে বসিয়ে একাদশে রাখা হয়েছে উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান লিটন দাসকে। গতকালই তাঁকে দলে নেওয়া হয়। মুশফিকের ব্যাকআপ হিসেবেই লিটনকে দলে নেওয়া হয়। ওপেনার সাদমান ইসলাম প্রস্তুতি ম্যাচে ভালো খেলে নির্বাচকদের দৃষ্টি কাড়েন।

About Benapole Pratidin

Check Also

ফ্লাডলাইট সমস্যা: সিলেটের টি-টোয়েন্টি শুরু দুপুরে

শুরুতে যে সূচিটা দেওয়া হয়েছিল, সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি হওয়ার কথা ছিল বিকেল …