যশোরে ৪০ প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ, বাতিল ২৬

যশোরের ছয়টি সংসদীয় আসনের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের সময় ৪০টি বৈধ হয়েছে। বাতিল হয়েছে ২৬টি।

গতকাল রোববার দিনভর তাদের মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই করা হয়।

রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়াল বলেন, যেসব প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে, তারা নির্বাচন কমিশনে আপিল করতে পারবেন।

যশোরের ছয়টি আসন থেকে ৬৬টি মনোনয়নপত্র জমা হয়। এদের মধ্যে বিএনপি, জাতীয় পার্টি, বিকল্পধারা, স্বতন্ত্র, ইসলামী আন্দোলনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনীত প্রার্থী রয়েছে।

যশোর-১ (শার্শা) আসনে স্বতন্ত্র (জামায়াত) আজিজুর রহমানের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। স্বতন্ত্র প্রার্থীর ১ শতাংশ ভোটার না থাকায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। জাকের পার্টির সাজেদুর রহমান ডাবলুর বিদ্যাুৎ বিল বকেয়া থাকায় মনোননয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

যশোর-২ (ঝিকরগাছা- চৌগাছা) আসনে দুনীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় বিএনপি মনোনীত সাবিরা সুলতানার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ নেতা এবিএম আহসানুল হক আহসান স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ১ শতাংশ ভোটারের শর্তপূরণ না করায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। জাতীয়পার্টির মুফতি ফিরোজ শাহ আয়কর রির্টান দাখিল না করার পাশাপাশি সম্পদের বিবরণ না দেওয়ায় মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া ঋণ খেলাপির কারণে জাকের পার্টির হাজী মহিদুল ইসলাম, দলীয় মনোনয়ন দাখিল না করায় ইসলামী ঐক্যজোটের মুহাদ্দিস শহিদুল ইসলাম ইনসাফী, মনোনয়ন ফরমে স্বাক্ষর না থাকায় বিএনএফ’র আবদুল্লাহ আল মাসউদ, হলফনামায় স্বাক্ষর না করায় গণফোরামের এম আছাদুজ্জামানের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

যশোর-৩ (সদর) আসনে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেন। তবে তিনি দলীয় মনোনয়নের কাগজ জমা না দেওয়ায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

ঋন খেলাপির কারণে এই আসনের ইসলামী আন্দোলনের মফিজুল আলম, বিকল্পধারা বাংলাদেশের মারুফ হাসান কাজলের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। আয়কর রির্টান জমা না দেওয়ায় জেএসডি’র সৈয়দ বিপ্লব আজাদের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। এছাড়া ঠিকাদারি কাজে সরকারের সাথে দুই বছরের চুক্তি থাকায় বিএনএফ’র প্রশান্ত বিশ্বাসের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে।

যশোর-৪ (বাঘারপাড়া ও অভয়নগর উপজেলা এবং বসুন্দিয়া ইউনিয়ন) আসনে ঋণখেলাপির দায়ে বিকল্পধারা বাংলাদেশের এম নাজিম উদ্দিন আল আজাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া আয়কর রির্টান দাখিল না করায় ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. আলী জিন্নাহ ও জাকের পার্টির লিটন মোল্লার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

যশোর-৫ (মণিরামপুর) আসনে আওয়ামী লীগ নেতা কামরুল ইসলাম বারীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। স্বতন্ত্র প্রার্থীর ১ শতাংশ ভোটারের শর্তপূরণ না করায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। এছাড়াও বিএনপির দলীয় মনোনয়ন না থাকায় মোহাম্মদ মুসা, বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় ইসলামী আন্দোলনের ইবাদুল ইসলাম খালাসী, আয়কর রির্টান জমা না দেওয়ায় জাকের পার্টির রবিউল ইসলাম ও জাগপা’র নিজাম উদ্দিন অমিতের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনে আয়কর না দেওয়ায় জাকের পার্টির সাইদুজ্জামানের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। দলীয় মনোনয়নপত্র জমা না দেওয়ায় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থীর ১ শতাংশ ভোটারের শর্তপূরণ না করায় নুরুল ইসলাম ও ঠিকাদারি কাজে সরকারের সাথে দুই বছরের চুক্তি থাকায় বিএনএফ’র প্রশান্ত বিশ্বাসের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

About Benapole Pratidin

Check Also

জাতীয় পার্টির ১৮ দফা ইশতেহার: ‘গণতন্ত্রের বিকাশ ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা’

জাতীয় পার্টির ১৮ দফা ইশতেহার: ‘গণতন্ত্রের বিকাশ ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা’

১৮ দফা নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছে জাতীয় পার্টি (জাপা)। শুক্রবার (১৪ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় জাপা চেয়ারম্যান …