রিয়ালকে উড়িয়ে দিল সিএসকেএ মস্কো

  • বেনাপোলে গোলাপ ফুলের সর্মথনে পথসভা-গণসংযোগ
সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে বুধবার রাতে ‘জি’ গ্রুপে স্বাগতিকদের ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে মস্কোর ক্লাবটি। ইউরোপীয় ফুটবলে ঘরের মাঠে রিয়ালের এটাই সবচেয়ে বড় ব্যবধানে পরাজয়।
প্রথম লেগে মস্কোর মাঠে ১-০ গোলে হেরেছিল প্রতিযোগিতার সর্বোচ্চ ১৩ বারের চ্যাম্পিয়নরা।
সোলারি রক্ষণ সাজান অনিয়মিত তরুণ খেলোয়াড়দের দিয়ে। মাঝমাঠেও মডরিচ-ক্রুসদের বেঞ্চে বসিয়ে রাখেন রিয়ালের আর্জেন্টাইন এই কোচ। স্বাগতিকদের রক্ষণের তরুণ তুর্কিদের প্রথম মিনিটেই ভড়কে দেয় সিএসকেএ।
ফার্নান্দেজের শট গোলপোস্টের বাইরে দিয়ে চলে যাওয়ায় বেঁচে যায় রিয়াল মাদ্রিদ। এরপর অবশ্য সুযোগ বেশি পায় রিয়ালই। প্রথমার্ধেই এক এক করে বেশ কটি সুযোগ হাতছাড়া করেন ইসকো-অ্যাসেনসিওরা।কী ভাবছেন অ্যাসেনসিও-ইসকোরা! ছবি: এএফপি
খেলার ২৪তম মিনিটে গোলের প্রথম সুযোগ পায় রিয়াল। দুবারের চেষ্টাতেও সে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি অ্যাসেনসিও-ভিনিসিউস জুনিয়র। ভিনিসিউস জুনিয়রের শট আটকে দেন মস্কোর গোলরক্ষক। ফিরতি বলে শট করেন মার্কো অ্যাসেনসিও। তাও গোলবারে লেগে ফিরে আসে। মিনিট দুয়েক পর ফের গোলের সুযোগ নষ্ট করেন অ্যাসেনসিও। এবার তাঁর সঙ্গী বেনজেমা।
রিয়াল খেলোয়াড়দের গোল মিসের ‘উৎসবে’ অতিথিরা অপেক্ষায় শুধু একটা ভালো মুহূর্তের; যখন গ্যালারি ঠাসা রিয়াল–সমর্থকদের চিৎকার কিছুটা হলেও থামানো যাবে। সে মুহূর্ত আসতে বেশি সময় লাগেনি অবশ্য। ম্যাচের ৩৭তম মিনিটেই বার্নাব্যু ঠান্ডা করে দেন শেলভ। শিগার্ডসন অসাধারণ নৈপুণ্যে মাঝমাঠ থেকে বল টেনে এনে ডি বক্সে আড়াআড়ি পাস দেন শেলভকে। মুহূর্তেই জায়গা করে নিয়ে বল জালে জড়ান শেলভ।গোলের পর সিএসকেএ মস্কোর খেলোয়াড়দের উদ্‌যাপন। ছবি: এএফপি
প্রথমার্ধের শেষ বাঁশি বাজার আগে আরও একবার বার্নাব্যুতে নেমে আসে পিনপতন নীরবতা। এবার রিয়াল–সমর্থকদের বুকে ছুরি চালান শেচেনিকভ। প্রথম চেষ্টায় চালোভের শট আটকালেও ফিরতি বলে শেচেনিকভের নেওয়া শটে কিছু করার ছিল না রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কর্তোয়ার।

দ্বিতীয়ার্ধে নিয়মিত একাদশের খেলোয়াড়দের নামিয়েও ব্যবধান কমাতে পারেননি সোলারির শিষ্যরা। ৭৩ মিনিটে উল্টো গোল হজম করে বসেন। শিগার্ডসনের আড়াআড়ি শটে রিয়ালের পরাজয় নিশ্চিত হয়। ততক্ষণে খালি হতে শুরু করে গ্যালারিও।

এ জয়ে অবশ্য সিএসকেএ মস্কোর কোনো লাভ হয়নি। গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হচ্ছে রাশিয়ার ক্লাবটিকে। ‘জি’ গ্রুপ থেকে রিয়ালের আরেক সঙ্গী ইতালিয়ান জায়ান্ট রোমা।