শার্শায় ৪১ জনের নামে নাশকতার মামলা: আটক ৯

শার্শা থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিএনপির ৯ নেতা কর্মিকে আটক করে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ৭টি বোমা, কয়েকটি রেল লাইনের পাথর ও লাঠি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

গত রোববার ভোরে তাদের কে শার্শা থানার টেংরা গ্রাম থেকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- শার্শার শুড়া গ্রামের দাউদ হোসেনের ছেলে আব্দুস সালাম, গোড়পাড়া গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে নাসির উদ্দিন, রামচন্দ্রপুর গ্রামের চেরাক আলীর ছেলে ইব্রাহিম, নাভারন রেল বাজারের মোহাম্মদ আলীর ছেলে রেজাউল ইসলাম, বেনেখড়ি গ্রামের আবু হোসেনের ছেলে মোয়াজ্জেম হোসেন, টেংরা গ্রামের ইরফান সরদারের ছেলে আব্দুল লতিফ, রাড়িপুকুর গ্রামের আজগার আলী গাজীর ছেলে শামসুর রহমান, বাগআচড়া গ্রামের বাহর আলীর ছেলে হাসানুজ্জামান ও বসতপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে আবুল হোসেন।

শার্শা থানার ওসি এম মশিউর রহমান জানান, বিএনপির নেতাকর্মিরা নাশকতার উদ্দেশ্য টেংরা গ্রামের সমাবেত হচ্ছে, এমন সংবাদে সেখানে অভিযান চালিয়ে ৯ জন কে আটক করা হয় বাকীরা পালিয়ে যায়। আটককৃদের নামে মামলা দায়ের করে যশোর কোর্ট হেফাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আটককৃত ৯ জন ও পলাতক ৩১ জনের নাম উল্লেখ করে একটি নাশকতার মামলা দায়ের করে থানা পুলিশ। শার্শা থানায় মামলা নং ০২।