সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় আ’লীগের সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে-মাসুদ চৌধূরী

এইচ এম ফিরোজ,চৌগাছা (যশোর)প্রতিনিধিঃ

যশোরের চৌগাছা উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের কার্যলয়ে রোববার বিকাল ৪টায় জেল হত্যা দিবস পালিত হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ- সভাপতি আলহাজ্ব সহিদুল ইসলাম মিয়ার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী মাসুদ চৌধূরি।

অনুষ্ঠানে উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাস্টার তারিকুল ইসলামের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সহ- সভাপতি আতিয়ার রহমান,আলতাপ হোসেন,জেলা পরিষদ সদস্য দেওয়ান তৌহিদুর রহমান,সাংগঠনিক সম্পাদক সোলাইমান হোসেন,অবাইদুল ইসলাম সবুজ,সোহেল কবীর,দপ্তর সম্পাদক মাহাবুবুল আলম রিংকু,শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সানোয়ার হোসেন বকুল,প্রচার সম্পাদক চন্নু মিয়া,ত্রান সম্পাদক আব্দুল কাদের,স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক শামীম আক্তার,সাংস্কৃতিক সম্পাদক তসলিমুর রহমান,মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজনীন নাহার,বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক কামরুল ইসলাম,উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল করিম,সাজ্জাদ মল্লিক,লিখন হাসান,রুবেল হোসেন,শোভন দেওয়ান,সোহেল দেওয়ান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি মেহেদী মাসুদ চৌধুরি বলেন, আজ ৩ নভেম্বর। জেল হত্যা দিবস। ১৯৭৫ সালের এই দিনে তৎকালীন আওয়ামী লীগের চার জেষ্ঠ্য নেতা- সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমেদ, ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী এবং এ এইচ এম কামরুজ্জামানকে হত্যা করা হয় ঢাকার কারাগারে। ওই সময় বাংলাদেশের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরে এই চার নেতাই ছিলেন দলের কেন্দ্রবিন্দুতে। এদিকে, আজো সবার মধ্যে একটি প্রশ্নই কাজ করে। ঠিক কি কারণে হত্যা করা হয়েছিল এই চার নেতাকে?

বাংলার এই কৃতি সন্তানদের পরিবারের এখন একটাই দাবি। জাতীয় চার নেতার খুনিদের যাতে অবিলম্বে দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের মুখোমুখি করা হয়। এতে করে জাতি পুরোপুরিভাবে কলঙ্কমুক্ত হবে। আর প্রতিষ্ঠা হবে ন্যায়বিচারের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

আজ চার নেতাকে হত্যা করা হয়েছে ৪২ বছর হল। এখন বাংলার মানুষ তাদের খুনিদের বিচার দেখতে চায়। এদের বিচার হলে, স্বাধীনতাবিরোধী-মানবতাবিরোধী শক্তিরা আর কখনোই মাথাচাড়া দিয়ে অন্তত বাংলার মাটিতে উঠতে পারবে না। তাই এটা এখন সময়ের দাবি।

Leave a Reply

shares