৬ মাসের মধ্যে মাদকের মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ

মাদক আইনে হওয়া যেসব মামলার অভিযোগপত্র আদালত ইতোমধ্যে আমলে নিয়েছে সেসব মামলা আগামী ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

মামলাগুলি নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে সহযোগিতা করার জন্য সকল জেলার ডিসি, এসপি, ওসি ও আইওকেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে ব্যর্থতা থাকলে তাদের জবাবদিহির আওতায় আনা হবে।

মঙ্গলবার মাদক আইনের এক মামলায় কারাগারে থাকা এক আসামির জামিন শুনানি করতে গিয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদেশের পাশাপাশি ওই আসামি মিজানুর রহমান বাড়ৈকে অন্তবর্তীকালীন জামিন দিয়েছে হাইকোর্ট।

আদালত বলেছে, মাদকের মামলা ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে জেলার ডিসি, এসপি, ওসি ও আইও সহযোগিতা করবে। এক্ষেত্রে ব্যর্থতা থাকলে তাদের জবাবদিহির আওতায় আনা হবে।

এছাড়া মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এবং সংশ্লিষ্ট আইন কর্মকর্তাকেও সাক্ষী আনাসহ মামলা নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে সহযোগিতা করতে বলা হয়েছে। তা না হলে তাদেরও ক্ষেত্রেও একই ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মিজানুর রহমান বাড়ৈকে ২০১৫ সালে ৬০০ ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করার পর তার বিরুদ্ধে মাদারীপুরের রাজৈর থানায় মামলা করে পুলিশ। আদালতে তার জামিন শুনানি করেন ফজলুর রহমান। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল ইউসুফ মাহবুব মোর্শেদ।

আদেশের পর ইউসুফ মাহবুব মোর্শেদ সাংবাদিকদের জানান, মিজানুর গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকেই কারাগারে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এখন পর্যন্ত কোনো সাক্ষীকে আদালতে হাজির করতে পারেননি। এ কারণে আদালত তার অন্তবর্তীকালীন জামিন মঞ্জুর করেছে।’