৪০০ গোলের মাইলফলকে মেসি

মেসিভক্তদের অপেক্ষার প্রহর তবে শেষ হলো! কারণ তাদের প্রিয় তারকা লা লিগায় গড়েছেন ইতিহাস, ছুঁয়েছেন অনন্য এক মাইলফলক।

এইবারের বিপক্ষে পাঁচবারের ব্যালন ডি অর জয়ী তারকার গোলটি যে ছিল লা লিগায় তাঁর চার শ’তম গোল। লা লিগার ইতিহাসে এর আগে কেউ চার শ গোলের রেকর্ড করতে পারেনি।

ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনা জিতেছে ৩-০ গোলের ব্যবধানে। ম্যাচের অন্য দুটি গোল করেন বার্সেলোনার আরেক তারকা লুইস সুয়ারেজ।

ন্যু ক্যাম্পে নিজেদের দুর্গে খেলা। প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করা কিংবা রেকর্ড উদ্‌যাপন করার এর চেয়ে আর ভালো জায়গা নিশ্চয় হয় না। মেসির আগের ৩৯৯টি গোলের ২৩০টিই যে নিজের চেনা-পরিচিত জগতে। এইবারের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ন্যু ক্যাম্পে মেসির গোলের সংখ্যা ২৩১টি।

ম্যাচের শুরু থেকে শেষ আধিপত্য ছিল স্বাগতিকদেরই। বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে থাকা বার্সেলোনা গোলের সুযোগ পায় ম্যাচের নবম মিনিটেই। সুযোগ তৈরি করেছিলেন সেই মেসিই। গোলপোস্টের বাইরে দিয়ে পিকের নেওয়া শট গোলবঞ্চিত করে বার্সেলোনাকে।

বার্সা গোলের দেখা পায় ম্যাচের ১৯তম মিনিটে। মাঝমাঠ থেকে আসা বল কুতিনহো ঠেলে দেন সুয়ারেজকে। ব্রাজিলিয়ান তারকার কাছ থেকে বল পেয়ে দুর্দান্ত শটে সেটা জালে জড়ান সুয়ারেজ।

প্রথমার্ধে আর গোলের দেখা পায়নি কোনো দলই। মেসিভক্তদের মনে তখন হতাশার কালো মেঘ ছেয়ে যায়—আজও কি হবে না? কিন্তু ভক্তদের হতাশ করেননি মেসি।

ম্যাচের ৫৩তম মিনিটে এইবারের জালে বল জড়িয়ে গড়ে ফেলেন ইতিহাস। সুয়ারেজের কাছ থেকে অসাধারণ পাস পেয়ে আড়াআড়ি শটে গোল করেন বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন এই তারকা। সুয়ারেজও বসে থাকবেন কেন!

৫৯তম মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোল করে এইবারের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন সুয়ারেজ। সুয়ারেজের গোলের আগে মেসির শট আটকে দেন এইবার গোলরক্ষক। তা না হলে মেসির গোলসংখ্যা নিশ্চিত বাড়ত।